পাটগাতি কেন্দ্রে দুর্যোগ ও নারী অধিকার বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত

28 1

বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) কর্তৃক পরিচালিত পাটগাতি আইসিটি অ্যান্ড কমিউনিটি ক্লাইমেট কেযার সেন্টারের উদ্যোগে ২৮ মে ২০১৫ইং তারিখ সকাল ১০টায় দুযোর্গ ও নারীর অধিকার বিষয়ক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ২৮জন সদস্য অংশগ্রহণ করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন মনিকা সাহা এবং রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টুংগিপাড়া পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর আসমা আক্তার (শিল্পী)।

সেন্টার ম্যানেজার সোফিদা আক্তার সভায় সকলকে উপস্থিত হওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। তিনি বলেন যে, আমরা নারী অধিকার নিয়ে অনেক কথা শুনি কিন্তু দুর্যোগেও নারীর অধিকার আছে এটা একটা নতুন বিষয় মনে হতে পারে। আজকের সভায় আমরা সে বিষয়ে জানব। এরপর তিনি রিসোর্স পারসনকে সদস্যদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন।

রিসোর্স পারসন এ ধরণের সভায় আসতে পারার জন্য কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন যে বর্তমান সরকার নারীর অধিকার রক্ষায় অনেক কাজ করছে। আর্ন্তজাতিকভাবে আমরা অনেক পুরস্কারও পাচ্ছি। আজকের বিষয় দুর্যোগ ও নারীর অধিকার। যেহেতু আপনারা প্রায় দু’বছর যাবৎ জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করছেন, সেহেতু আপনারা এবিষয়ে আমার চেয়ে বেশি জেনেছেন। আজকে আমি শুধু দুর্যোগের সময় নারীর অধিকার কি সে বিষয়ে আলোচনা করব।

তিনি বলেন, দুর্যোগের সময় প্রথমে আমরা নিরাপদ একটা আশ্রয় কেন্দ্র যাব। যেখানে নারীর নিরাপত্তা ১০০% নিশ্চিত থাকবে। আশ্রয় কেন্দ্র নিরাপদ অর্থাৎ দুর্যোগে ক্ষতি হবে না কিন্তু নারীর জন্য নিরাপত্তা নেই সেই আশ্রয় কেন্দ্রে যাব না। সংকেত শুনলে আমাদের প্রস্তুত হতে হবে। নারী, শিশু ও বয়স্কদের অগ্রাধীকার দিতে হবে আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থানের জন্য। দুর্যোগকালে ঝুকিপুর্ন জনগন যেমন গর্ভবতী মা ও বয়স্কদের দিকে বেশি নজর রাখতে হবে। যেহেতু সংসারের বিষয়ে নারীর অভিজ্ঞতা বেশি, সেহেতু কোন কোন জিনিসপত্র সাথে নিতে হবে তা মনে মনে স্থির করতে হবে। নিজের আশ্রয় এর সাথে সাথে অন্য নারীর কথাও ভাবতে হবে।

এছাড়া নারী অধিকার বিষয়ে তিনি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ, যৌন হয়রানি, যৌতুক, বাল্যবিবাহ নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন যে কোন মুল্যে আমাদের সমাজ থেকে বাল্যবিবাহ দূর করতে হবে এবং নারীর প্রতি সমস্ত প্রকারের বৈষম্য দূর করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে মনিকা সাহা বলেন যে, আমাদের ঐক্য ধরে রাখতে হবে। এই প্রকল্প থেকে আমরা যে জ্ঞান অর্জন করেছি, সেই জ্ঞানকে কাজে লাগাতে হবে। যেহেতু দুর্যোগ বলে আসে না সেহেতু আমাদের আগাম প্রস্তুত থাকতে হবে। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার কাজ শেষ করেন।