জুজখোলা কেন্দ্রে জ্ঞান বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

20141214_152326

বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) কর্তৃক পরিচালিত জুজখোলা আইসিটি এন্ড কমিউনিটি ক্লাইমেট কেয়ার সেন্টার এর উদ্যোগে ১৪ ডিসেম্বর ২০১৪ ইং মঙ্গলবার সকাল ১১.০০ টায় এক জ্ঞান বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধান অতির্থী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডা: মোহাসিন শেখ। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন শ্যামল কান্তি মজুমদার। সভায় মোট ৩১ জন লোক উপস্থিত ছিলেন। সভার শুরুতে শ্যামলী বেপারী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভা শুরু করেন।

সভায় প্রধান অতিথী অতীতের অনেক তথ্য ভিত্তিক আলোচনা করে বলেন, আজকের পরিবেশের সাথে অতীতের পরিবেশের অনেক পার্থক্য বিদ্যমান। আগে আমাদের দেশে ৬ টি ঋতু দেখা যেত বতমানে এদেশকে ৬ ঋতুর দেশ বলা যায়না । আমরা যখন ছোট ছিলাম শীতকালে জুজখোলা গ্রামের আবহাওয়া এরুপ ছিলনা। শীতকালে এ সময়ে অতীতে বেশি শীত দেখা যেত। কিন্তু বর্তমান এতটা শীত নেই। অসময়ে ঝড়, বন্যা দেখা দেয়। আমার কাছে আগের আবহাওয়ার সাথে বর্তমান সময়ে বেশ পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়। আমরা অতীতে বড় বড় নদী দেখতে পেতাম। বর্তমানে নদী গুলো আছে, কিন্তু নদী খালে পরিণত হয়েছে। যেমন আগে বলেশ্বার নদী অনেক বড় ছিলো কিন্তু সেই নদী ভরাট হয়ে অনেক ছোট হয়ে গেছে। আগে এসব অনেক নদীতে প্রচুর মাছ ছিল, আমরা সবাই মিলে জাল নিয়ে মাছ ধরতে যেতাম বড় বড় মাছ গুলো নিয়ে আসতাম আর ছোট মাছ গুলো নদীতে ছেড়ে দিতাম।

সভায় তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন নাম না জানা রোগে আমাদের এলাকার লোক আক্রান্ত হচ্ছে। যা অতীতে দেখা যেতনা। আমাদের জুজখোলা গ্রামে অনেক শ্বাস কষ্ট জনিত রোগের রোগী আমার কাছে আসছে। যাদের গরম পোশাক নেই ,শীতে গায়ে দেবার মতন বেশি কিছু নেই। আমাদের এলাকায় অতীতে বেশি বেসকারী সংস্থা (এনজিও) এর কার্যক্রম ছিলনা । বর্তমানে বিভিন্ন অর্থ সামাজিক এনজিও কাজ করে থাকে, ফলে অনেক অসহায় মানুষ তাদের কাছ থেকে নানা ভাবে সহায়তা পেয়ে থাকে।

পরিশেষে সভাপতি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।