সোনাডাঙ্গা কেন্দ্রে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত

Image0863

বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) পরিচালিত সোনাডাঙ্গা আইসিটি এন্ড কমিউনিটি ক্লাইমেট কেয়ার সেন্টার এর উদ্যোগে গত ১২ মার্চ ২০১৫ইং তারিখ বিকাল ৩টায় আদর্শ পল্লীতে জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগের আগাম সংকেত বিষয়ক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন নারী নেত্রী মিনারা বেগম। সভায় ২৯জন সদস্য অংশগ্রহন করেন। সভায় সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন ইয়ুথ গ্রুপের সদস্য ফারজানা আক্তার।

সভায় সেন্টার ম্যানেজার দীপক ব্যানার্জী বলেন যে, আমরা আপনাদের সাথে ১৮মাস যাবৎ কাজ করছি। উল্লেখযোগ্য কাজগুলোর মধ্যে ইয়ুথ গ্রুপ গঠন, ব্লাড গ্রুপিং, এলাকার তথ্য সংগ্রহ, বয়স্কদের তথ্য সংগ্রহ, নারী ও শিশুদের তথ্য সংগ্রহ, ইয়ুথ গ্রুপের সদস্যদের জন্য কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ইত্যাদি। এছাড়া আমরা প্রতিমাসে দু’টি করে সভা করেছি। যার একটি ইয়ুথ গ্রুপের সাথে, আর একটি কমিউনিটি সদস্যদের সাথে। এসব সভার মাধ্যমে আমরা নিজেদের মধ্যে জ্ঞান বিনিময় বা অভিজ্ঞতা বিনিময় করেছি। আমাদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কের উন্নতি হয়েছে। আগামী কয়েকমাসে আপনাদের চাহিদা মোতাবেক আমরা নতুন নতুন বিষয় নিয়ে আলোচনা করব এবং পুর্বের আলোচনাগুলো ঝালাই দেব।

এ পর্য়ায়ে ফারজানা বলেন যে, একটা বিষয় বাদ পড়েছে, সেটা হলো ব্লগে লেখা। আমরা ইয়ুথ গ্রুপের সদস্যরা এলাকার বিভিন্ন বিষয়ে লিখছি এবং আনন্দ পাচ্ছি। কয়েকজন সদস্য এ বিষয়ে দেখতে চাইলে আগামী ২৩ তারিখ খুলনা অফিসে দেখানোর সিদ্ধান্ত হয়।

এরপর জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে ডাটা অ্যাসিসট্যান্ট নওরীন আক্তার জলবায়ু নিয়ে প্রশ্ন করলে নাদিরা আক্তার বলেন যে, এখন দিনে গরম আর রাতে শীত পড়ছে। জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব এখান থেকে অনুমান করা যায়। এরপর এমন গরম পড়বে যা সহ্য করতে অসুবিধা হবে। এই পকল্পের সাথে জড়িত না হলে আমরা জলবায়ুর পরিবর্তন সম্পর্কে জানতে পারতাম না। এরপর নওরীন আক্তার জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন।

এরপর সেন্টার ম্যানেজার দুর্যোগের আগাম সংকেত নিয়ে আলোচনা করেন। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সভা করার যে সমস্যা হচ্ছে সেজন্য প্রয়োজনে শুক্রবারে সভার করার সিদ্ধান্ত হয়।

সভাপতি মিনারা বেগম বলেন বস্তিতে সভা করার মত জায়গার অভাব। প্রকল্পের মাধ্যমে একটা ঘর করতে পারলে ভাল হত। ইয়ুথ গ্রুপের সদস্যদের জন্য একটা বসার জায়গার দরকার। আবার সমস্যা হচ্ছে আমাদের জায়গা নেই। সমস্যা সমাধানে ইয়ুথ গ্রুপের সদস্যদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান এবং দুর্যোগ বিষয়ে আরও প্রশিক্ষণের জন্য অনুরোধ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।