পাটগাতি কেন্দ্রে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত

patgati

বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) পরিচালিত পাটগাতি আইসিটি এন্ড কমিউনিটি ক্লাইমেট কেয়ার সেন্টার এর উদ্যোগে গত ১৮ মার্চ ২০১৫ ইং তারিখ বিকাল ৩টায় জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগের আগাম সংকেত বিষয়ক সভা। সভায় সভাপতিত্ব করেন সোহেল রানা। উক্ত সভায় রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেনাডাংগা কেন্দ্রের ম্যানেজার দীপক ব্যানার্জী। সভায় ২২ জন সদস্য অংশগ্রহণ করেন।

সভার শুরুতে প্রশিক্ষণ সুপারভাইজার সোফিদা আক্তার আজকের সভার আলোচ্য বিষয়ের উপর আলোচনা করে তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব আমরা কিছুটা হলেও টের পাচ্ছি। এখনই আমাদের এবিষয়ে আরও জানতে হবে। এছাড়া দুর্যোগের আগাম সংকেত বিষয়ে জানা থাকলে ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ কম হয়। আমরা যা জানব তা যেন অন্যদের সাথে আলোচনা করি।

এরপর দীপক ব্যানার্জী বলেন, দুর্যোগপূর্ববর্তী, দুর্যোগকালীন এবং দুর্যোগপরবর্তী পর এই তিন পর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবকদের এলাকায় কাজ করতে হয়। যেসব বিষয়ে কাজ করতে হয় সে সম্পর্কে ধারণা থাকলে কাজ করতে সুবিধা হয়। আজকের আয়োজন এজন্যই।

এরপর তিনি বলেন যে, বাতাসের বেগ অনুসারে আমাদের অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড়কে কয়েকটি ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। যেমন-

লঘু চাপ : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ৩১কি:মি: বা এর উপরে।
নিম্নচাপ : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ৩১-৫০কি:মি:।
গভীর নিম্নচাপ : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ৫১-৬১কি:মি:।
ঘূর্ণিঝড় : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ৬২-৬৮কি:মি:।
প্রচন্ড ঘূর্ণিঝড় : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ৮৯-১১৭কি:মি।
সুপার সাইক্লোন : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ১১৮-২২০কি:মি:।
প্রবল ঘূর্ণিঝড় : বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ২২১কি:মি: এর উপরে।

এরউপর ভিত্তি করে বিভিন্ন সংকেত প্রদান করা হয়। আর এই সংকেত পাওয়ার সাথে সাথে প্রয়োজন অনুযায়ী কাজ করতে হয় স্বেচ্ছাসেবকদের।

পরিশেষে সভাপতি সভায় উপস্থিত হবার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।