পাটগাতি কেন্দ্রে কর্মশালার অভিজ্ঞতা বিনিময় শীর্ষক সভা অনুষ্ঠিত

Image0882

বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) কর্তৃক পরিচালিত পাটগাতি আইসিটি এন্ড কমিউনিটি ক্লাইমেট কেয়ার সেন্টার এর উদ্যোগে গত ১৪ মে ২০১৫ইং তারিখ সকাল ১১টায় বাগেরহাটের কর্মশালার অর্জন ও অভিজ্ঞতা বিনিময় শীর্ষক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সোফিদা আক্তার। সভায় ১৬জন সদস্য অংশগ্রহণ করে। সভায় রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোনাডাঙ্গা সেন্টার ম্যানেজার দীপক ব্যানার্জী।

সভার শুরুতে সোফিদা আক্তার বলেন যে, ইচ্ছা থাকা সত্বেও এবারের কর্মশালায় যেতে পারিনি। অংশগ্রহণকারীদের নিকট থেকে আমরা জানতে পারব তাদের অভিজ্ঞতার কথা। এই অভিজ্ঞতার কথা এলাকার অন্যদেরও জানাতে হবে। তাহলে আমরাই লাভবান হব।

এরপর রিসোর্স পারসন কর্মশালার বিষয় ইন্টারনেট অ্যান্ড নলেজ ডেভেলপমেন্ট এর উপর আলোচনা করেন। এরপর কর্মশালা নিয়ে অংশগ্রহণকারীদের অভিজ্ঞতার বিষয়ে আলোচনা করতে বলেন। আলোচনার সুবিধার্থে তিনি কর্মশালার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করতে বলেন।

আলোচনার শুরুতে সোহেল রানা বলেন যে, অনেকেরেই জীবনে এই প্রথম একটা কর্মশালায় যাবার সুযোগ হল। এজন্য আয়োজকদের তিনি ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, কর্মশালার ব্যবস্থাপনা খুবই ভাল ছিল। আলোচনার বিষয় বস্তু ভাল ছিল। বিভিন্ন কেন্দ্রের ভাই-বোনদের সাথে পরিচয় হল। কর্মশালায় না গেলে কোনদিন এটা সম্ভব হত না। সবকিছু মিলিয়ে খুব ভাল একটা কর্মশালা হয়েছে। ইন্টারনেট সম্পর্কে ভাল ধারণা ছিল না। কর্মশালায় গিয়ে ছোট ছোট অনেক জিনিস শিখলাম।

সজল সরকার বলেন যে, জায়গাটা খুব ভাল ছিল। উপযুক্ত পরিবেশে আমরা সবাই মিলিত হয়েছিলাম। আমরা যারা ইন্টারনেট ও ফেইসবুক ব্যবহার করি তারা অনেকেই জানি না এর ভিতরে কি বিপদ আছে। না জেনে কাউকে বন্ধু করা যাবে না। এসব ফেক বন্ধুদের মাধ্যমে আমরা বিপদে পড়তে পারি। এর ফলে এলাকায় যে কোন ধরণের বিপদ হতে পারে। তাই সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। ব্লগ নিয়ে পরিবার থেকে একধরণের আপত্তি আছে। কর্মশালায় গিয়ে আমরা জানলাম আমাদের ব্লগ নিয়ে কোন ভয় নেই। আমাদের কেন্দ্র থেকে কোন নারী সদস্য অংশগ্রহণ করে না। অথচ তারা যদি একবার যায় তাহলে বুঝতে পারবে এসব জায়গায় তাদের কোন সমস্যা হবে না। অন্য কেন্দ্রর বোনেরা অংশগ্রহণ করল অথচ আমাদের কেন্দ্র থেকে কেউ যেতে চায় না অথচ এটি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর এলাকা।

পরিশেষে সভাপতি সবাইকে তাদের অভিজ্ঞতা অন্যদের সাথে শেয়ার করার কথা বলে সভার কাজ শেষ করেন।